October 29th, 2015

বিল গেটস২৮ অক্টোবর বিল “অসাধারণ” গেটসের জন্মদিন। ভৌগলিক কারণে আমরেকিায় এখনো ২৮ তারিখ। কাজে আমার এই শুভ কামনা “টু আর্লি ফর নেকস্ট ইয়ার হবে না”। ষাট বছর হল বিশ্বের ১ নম্বর ধনী ও বড় মানুষের।
বিল গেটস এবং তাঁর ব্যবসা ও দর্শন আমাকে সবসময় টেনেছে। আমেরিকার ধনীদের একটা বড় গুন হল তাদের মধ্যে তাদের চিন্তা, কাজের পদ্ধতি এসব শেয়ার করার একটা ইচ্ছে সব সময় থাকে। বিলও তার ব্যতিক্রম নন।

বিলের প্রথম বই – রোড এহেড আমার পড়া প্রথম ব্যবসা ও আগামী দিন বিষয়ক বই। প্রায় ৬ মাসকাল এটি আমার বালিশের পাশে ছিল (কে জানি পড়তে নিয়ে আর ফেরৎ দেয়নি)। সে সময় আমি ব্যবসার বেশিরভাগ জিনিষই বুঝতাম না (এখনো বুঝি না) কিন্তু ঐ বই পড়ে একটা কথা ভালভাবেই বুঝেছি সেটা হল উদ্যোক্তাদের সফল হতে হলে এক জিনিস লাগবেই। সেটা হল – দূর ভবিষ্যৎ দেখতে পারা।
আইবিএমের কাছে ডস বেঁচার গল্পটা আমি প্রায়শ আমার বিভিন্ন বক্তৃতায় বলি। লক্ষ টাকা নয়, এক টাকা চাই নামে এই নিয়ে আমার একটা লেখাও আছে। ভলিউম আর এককালীন ব্যবসার মধ্যে পার্থক্যটা সবসময় তিনি বুঝতে পারতেন।

বিলের আর একটা বিষয় আমাকে আরো অবাক করেছে। সেটি হল রিটায়ারমেন্ট। আমাদের দেশে কেও তার প্রতিষ্ঠান বা নিজ হাতে গড়া উদ্যোগ থেকে সরে আসে চায় না। বেশিরভাগই আমৃত্যু চেয়ারম্যান/এমডি হয়ে বসে থাকেন। বিল তা করেননি। অনেক আগেই তিনি মাইক্রোসফট-এর কাজ কর্ম থেকে রিটায়ার করেছেন।
এখন সময় কাটান বই পড়ে, বিল -মেলিন্দা গেটস ফাউন্ডেশনে সময় দিয়ে আর ব্লগে লেখালেখি করেন। তবে সবচেয়ে বেশি সময় বই পড়েন। তার লেখালেখিতে আমার প্রিয় হল তার পড়া বই-এর রিভিউ যা নিজের ব্লগে তিনি রেগুলার করেই যাচ্ছেন।

আর সবচেয়ে বড় কথা হল ঠিক জানেন কোন সময় কী করা দরকার।
বিলের সব গল্প, বই , সাক্ষাৎকার ইন্টারনেটে পাওয়া যায়। কাজে তাঁর সম্পর্কে আমার ব্লগ পড়ুয়াদের নতুন কিছু জানানোর দরকার নাই। তারা সেটি নিজেরাই করে নিতে পারবে।
আমি ছোট্ট একটা ঘটনা লিখে এই প্যাচাল শেষ করবো।

12182919_1714356552121268_2813840238163695545_o
বিল প্রথম মেলিন্দাকে ডেটের জন্য প্রপোজ করেন এভাবে, ” আমি ভাবছি আজ থেকে দুই সপ্তাহ পরে আমরা একসঙ্গে বাইরে যেতে পারি।” শুনে মেলিন্দা বিলকে বলেছিলেন যে তার জন্য বিল মনে হয় যথেষ্ট স্বতস্ফূর্ত নন!!!

ঘন্টাখানেক পর বিল আবার মেলিন্দাকে ফোন করে সেই রাতেই বাইরে যাওয়ার কথা বলেন। তারপর যোগ করেন –  “Is that spontaneous enough for you?”

আমি অনেক শুভ কামনা পড়েছি। কিন্তু আজকে মেলিন্দার ফেসবুক পেজের এই ছোট্ট পোস্টটি আমার অনেক দিন মনে থাকবে। এটি বাংলা করছি না মূল সুরটা হারিয়ে যেতে পারে বলে।

“Bill, after two amazing decades together, your humor, drive, intelligence, curiosity, thoughtfulness, optimism – and, yes, your spontaneity – are as wonderful as ever. On land, at sea, and everywhere in between, I’m glad you’re by my side.

Happy, happy birthday. ”

বিল “অসাধারণ” গেটস।

শুভ শুভ শুভ জন্মদিন। তৃতীয় বিশ্বের স্বাস্থ্য, শিক্ষা এবং দারিদ্রদূরীকরণে আপনার প্রচেষ্টা আরো গতিময় হোক।

আপনার মঙ্গল হোক।

 

 

আরও পড়তে পারেন:
বাঘ না অপরূপা?
সামসুল হক খান স্কুলে একবেলা
রাইজ অব দ্যা মেশিন?
রাস্তার টাকা কুড়িয়ে নেবেন বিল গেটস!
ঘরে ফিরেছে এক্স ডট কম