February 13th, 2018

বাংলা আমার মায়ের ভাষা
বাংলা আমার অহংকার
বাংলাদেশর মানুষ চলো
গর্জে উঠি আরেকবার।

 

বাংলাদেশে বলতে গেলে ছোটদের জন্য তেমন কেউ লিখতে চায় না। যদিচ কেউ লেখে, হোক সেটি পদ্য বা ছড়া বা উপন্যাস, সবটাতেই কেন জানি শেখানোর একটা ভাব থাকে। আকছাদুর রহমানের পঙ্খীরাজের পিঠে পড়ে’র কভার দেখে আমি ভেবেছিলাম এটি হয়তো ভিন্ন ধারার হবে। তবে, সেটি হরো না। শুরুতে যে ছড়াটি লিখেছি সেটি এই বই-এর প্রথম ছড়া। এরকম ১৪টি ছড়া আছে বইটিতে। সবগুলো ছোটদের জন্য।
শুরু থেকে ছড়াকার নিজের উদ্দেশ্য সম্পর্কে সচেতন ছিলেন- তিনি ছড়ার মাধ্যমে কিছু মেসেজ দিতে চেয়েছেন যা ভাল, কল্যানকর এবং দরকারী। যেমন –

পড়ার সাথে খেলতে হবে
দেখতে হবে ধরা,
জীবন মানে স্বপ্ন দেখা
বিশ্বকে জয় করা।

ছন্দের ব্যাপারটা আমি ঠিক জানি না। তবে, আমি তড়তড় করে সব কটা ছড়াই কিন্তু পড়ে ফেলেছি। এর মধ্যে কয়েকটা বেশ ভাল লেগেছে। একটা –

সময়মতো খেতে হবে
সময় মতো ব্রাশ
অনিয়মে অসুখ বিসুখ
থাকে বারো মাস।

লেখক সাবলীল ভাবে লিখেচেন। তবে, দুই একটা শব্দচয়নে আমার কেমন জানি মনে হয়েছে। যেমন প্রথম ছড়াতে ‘কুলাঙ্গার’শব্দের ব্যবহার। তারপর পিঁপড়ে ছড়াতে ‘হাতে নিলে কামড় মারো’ এটিও মনে হয় কোথাও ঝামেলা পূর্ণ।

এরকম এক-দুইটা ছাড়া বাকী ছড়াগুলো ভালই হয়েছে।
আকছাদুরের ভাষার দখল ভাল। ইচ্ছে করলে লুই ক্যারলের মতো ননসেন্স ছড়া লেখার চেষ্টা করলে খারাপ হতো না।

পঙ্খীরাজের পিঠে চড়ে
আকছাদুর রহমান
ছোটদের বই
মূল্য ৭০ টাকা

আরও পড়তে পারেন:
বইমেলার বই-৩ : চোখ রাঙ্গালে না হয় গ্যালিলেও লিখে দিলেন পৃথিবী ঘুরছে না
বইমেলার বই -৪ : মহাজাগতিক সুর লহরী
বইমেলার বই ৬ : গণিত শেখো অঙ্কবান, যায় যাবে যাক প্রাণ
বইমেলার বই-১০ : চিন্তা করে রেডিও সারাই করে যে বালক!
বইমেলার বই ১৪ : “পড়ো, পড়ো, পড়ো” - “আঁকো, আঁকো, আঁকো” - “করো, করো, করো”।